1. info@www.doiniknews71.com : দৈনিক নিউজ ৭১ :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০১:১৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
উজানচর কংশ নারায়ণ উচ্চবিদ্যালয়ের এসএসসি ফলাফল পুনঃ নিরীক্ষণে পাশের হার শতভাগ। হোমনায় রেহানা বেগম পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত;ভাইস চেয়ারম্যান নতুন মুখ। বাঞ্ছারামপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা। পরীক্ষামূলক সম্প্রচার হোমনায় ছেলের হাতে মা খুন- ছেলে আটক, বাঞ্ছারামপুরে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিলো উজানচর কংশ নারায়ণ উচ্চবিদ্যালয় কালিকাপুর মানব সেবা সংগঠনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত। বাঞ্ছারামপুরে ক্যাপ্টেন এবি তাজুল ইসলাম এমপির শাড়ি লুঙ্গি বিতরণ ভেলানগর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠনের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ। গ্রীন ভয়েস বাঞ্ছারামপুর উপজেলা শাখার উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ।

৭ মাসেই কোরআনে হাফেজ মোহাম্মদ বায়েজিদ বোস্তামি

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৫ মার্চ, ২০২৪
  • ৯৬৭ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরের ভুরভুরিয়া চিশতীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার হিফজুল বিভাগ থেকে মাত্র সাত মাসে কোরআনে হাফেজ হয়ে এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি করলেন মোহাম্মদ বায়েজিদ বোস্তামী নামের ১৩ বছরের এক শিশু।

উপজেলার ছলিমাবাদ ইউনিয়নের ভুরভুরিয়া চিশতীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা থেকে মাত্র সাত মাসে সে হাফেজ হয়। সে ফরদাবাদ গ্রামের মো. ইসমাইল মিয়ার বড় সন্তান।

এ উপলক্ষে সোমবার (৪ মার্চ) দুপুরে ভুরভুরিয়া চিশতীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার উদ্যোগে মাদ্রাসা সংলগ্ন মাঠে এক ইসলামি সুন্নী মহা সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান বক্তা মাওলানা মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত্ব তাহেরী মোহাম্মদ হাফেজ বায়েজিদ বোস্তামি কে পাগড়ী পরিধান করিয়ে হাফেজ হিসেবে বরণ করে নেন।

বিশেষ বক্তা হিসেবে বয়ান পেশ করেন দেশ টিভির ধর্মীয় আলোচক শাহ মোঃ বদিউজ্জামান।
এতে মো.ফুল মিয়া প্রধানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সৌদি প্রবাসী মো. নজরুল ইসলাম ও প্রধান মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ছলিমাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জালাল মিয়া।

বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভুরভুরিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মো. সাইদুর রহমান। অত্র মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক হাফেজ মাওলানা আশরাফুল ইসলাম জাকারিয়া। এছাড়াও এলাকার বিশেষ গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও কয়েক হাজার মানুষ এতে উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে মো.আরিফুল ইসলাম মাসুম বলেন, মাত্র সাত মাসে কোরআনে হাফেজ এটি সত্যিই অবাক করার মতো। শিক্ষকদের আন্তরিক প্রচেষ্টার ফলেই এটা সম্ভব হয়েছে। এই মাদ্রাসার সাফল্যের ধারা অব্যাহত থাকবে এবং এখান থেকে অল্প সময়ে আরো এমন কোরআনের হাফেজ হবে বলে আমরা আশাবাদী।

এ বিষয়ে অত্র মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক হাফেজ মোহাম্মদ আবু সাইদ বলেন, বায়জিদ বোস্তামি খুবই মেধাবী একজন ছাত্র। সকল শিক্ষকদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মাত্র সাত মাসেই সে কোরআনে হাফেজ হয়েছে। আপনাদের সন্তানদের কেও ইসলামী শিক্ষায় শিক্ষিত করতে এ মাদ্রাসায় ভর্তি করুন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং