1. info@www.doiniknews71.com : দৈনিক নিউজ ৭১ :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০১:৫১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
উজানচর কংশ নারায়ণ উচ্চবিদ্যালয়ের এসএসসি ফলাফল পুনঃ নিরীক্ষণে পাশের হার শতভাগ। হোমনায় রেহানা বেগম পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত;ভাইস চেয়ারম্যান নতুন মুখ। বাঞ্ছারামপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা। পরীক্ষামূলক সম্প্রচার হোমনায় ছেলের হাতে মা খুন- ছেলে আটক, বাঞ্ছারামপুরে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিলো উজানচর কংশ নারায়ণ উচ্চবিদ্যালয় কালিকাপুর মানব সেবা সংগঠনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত। বাঞ্ছারামপুরে ক্যাপ্টেন এবি তাজুল ইসলাম এমপির শাড়ি লুঙ্গি বিতরণ ভেলানগর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠনের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ। গ্রীন ভয়েস বাঞ্ছারামপুর উপজেলা শাখার উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ।

বাঞ্ছারামপুর হযরত আজমত শাহের স্বরণে ২দিনব্যাপী ঔরশ শরীফ অনুষ্ঠিত।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৩৪৪ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় হযরত দয়াল আজমত শাহ স্বরণে ১৩৭ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে বাৎসরিক ঔরস শরীফ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ৩০ ও ৩১ শে জানুয়ারি মঙ্গলবার ও বুধবার ২দিনব্যাপী উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের বুধাইর কান্দি উত্তর পাড়া বুধাইর বাড়ী দরবার সংলগ্ন বালুর মাঠে প্রথম দিন রাত ১০টায় লালন সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশের সুনাম ধন্য লালন কন্যা শিরিন সুলতানা বনাম তার দল। দ্বিতীয় রাতে বাউল আসরে মুর্শিদী,ভাববিচ্ছেদ,আত্তাতিক মালজোড়া গান পরিবেশন করেন বাংলাদেশের সুনাম ধন্য বাউল শিল্পী জহির পাগলা বনাম শিরিন দেওয়ান।

বাউল জলসার ২দিনের আসরে গান শুনতে দর্শক শ্রোতাদের উপস্থিতি ও ভিড় ছিলো চোঁখে পড়ার মতো,লালন কন্যারা ও বাউল শিল্পীরা তাদের সুর ছন্দ নূত্যের মূছনায় সারারাত দর্শকদের মাতিয়ে রাখে।

উক্ত ঔরস মোবারক উপলক্ষে রাত ১০ টায় প্রথম দিনে লালন সঙ্গীত ও শেষ রজনীতে বাউল সঙ্গীতের শুভ উদ্ভোদন করেন বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক কমান্ডার।

উজানচর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও তিতাস এন্টারপ্রাইজের মালিক মো.তাজুল ইসলাম ছোট তাজ মিয়ার সভাপতিত্বে
তানজীর ওয়াই-ফাই লিমিটেড এর প্রতিষ্ঠাতা মো.হুমায়ূন কবিরের পরিচালনায় ও সার্বিক ব্যবস্হাপনায় ছিলেন হেলাল উদ্দিন খান খোকন, আয়েছ আলী, জয়নাল আবেদিন সরকার,গিয়াসউদ্দিন,নুরুল ইসলাম, কাইয়ুম সিকদার, আহসান উল্লাহ, ওমর আলীসহ আরোও অনেকে।

উক্ত গানের জলসায় মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দুর দুরান্ত থেকে আগত অনেক বন্ধু বান্ধব, শুভাকাঙ্ক্ষী,সন্মানিত ব্যাক্তিবর্গ, বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বাঞ্ছারামপুর,হোমনা,মুরাদনগর উপজেলার গান প্রেমী শ্রোতা বন্ধুরা।
এছাড়াও স্হানীয় আরো বহু গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

২দিন ব্যাপী অনুষ্ঠান শেষে ঔরশ কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম ছোট তাজ মিয়া বলেন আজ থেকে ১৫০ বছর আগে হযরত আজমত শাহ আমাদের এখানে ছিলেন, উনি একজন আলেম বুজুর্গ ব্যাক্তি ছিলেন, ১৩৭ বছর যাবৎ বাপ দাদা গ্রামবাসী মিলে উনার ওফাৎ দিবস পালন করে আসছে, তাদের পরে আমরাও পালন করে যাচ্ছি,আমাদের পরের প্রজন্ম ও পালন করে যাবে, আমরা সুন্দর ভাবে আন্তরিকতার সাথে আনন্দগন পরিবেশে অনুষ্ঠানটি শেষ করতে পেরেছি,আমরা গ্রামবাসী সবার কাছে কৃতজ্ঞ, প্রতি বছর ধারাবাহিক ভাবে উনার ওফাৎ দিবস পালিত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং